ইসলামে তাবিজ ব্যবহার করাকে কি বলেছে?

Spread the love
  •  আমাদের দেশে কতিপয় পীর-ফকির,
  • শিক্ষিত-অশিক্ষিত অনেক সাধারণ মানুষই তাবিজ-কবচ, তাগা, কড়ি, শামুক, ঝিনুক ও গাছ-গাছালির শিকড়-বাকড় ইত্যাদি দিয়ে বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা করেন এবং এটি বৈধ ও জায়েয মনে করেন। এ সম্পর্কে বাজারে কিছু বই-পুস্তক পাওয়া যায়, সে সব বইয়ে নির্ধারিত বিষয়ে গ্রহণযোগ্য কোনো দলিল নেই, আছে কিছু মনগড়া কেচ্ছা-কাহিনী, অসংখ্য তদবিরের বর্ণনা ও তার বানোয়াট ফাজায়েল। এ সব বই পড়ে কেউ কেউ বিপদাপদ, দুঃখ-কষ্ট, অভাব-অনটন, রোগ-যন্ত্রণা থেকে মুক্তি লাভের আশায় বিভিন্ন তদবির ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ হয় ও তা গ্রহণ করে। তারা এ ধরনের চিকিৎসার মূল্যায়ন ও তার বৈধতা-অবৈধতা সম্পর্কে পুরোপুরি অজ্ঞ। অত্র নিবন্ধের মাধ্যমে আমরা এ বিষয়টির তত্ত্ব ও স্বরূপ উদঘাটন এবং ইসলামের দৃষ্টিতে তার হুকুম বর্ণনা করব।
  • এক. ইমরান ইবন হুসাইন রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন,
    «أَنَّ النَّبِيَّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ رَأَى رَجُلًا فِي يَدِهِ حَلْقَةٌ مِنْ صُفْرٍ فَقَالَ: «مَا هَذِهِ الْحَلْقَةُ؟» قَالَ: هَذِهِ مِنَ الْوَاهِنَةِ. قَالَ: «انْزِعْهَا فَإِنَّهَا لَا تَزِيدُكَ إِلَّا وَهْنًا؛ فَإِنَّكَ لَوْ مِتَّ وَهِيَ عَلَيْكَ مَا أَفْلَحْتَ أَبَدًا»
    “একদা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এক ব্যক্তির হাতে তামার চুড়ি দেখে বললেন, এটা কি? সে বলল: এটা ওয়াহেনার অংশ। (ওয়াহেনার অর্থ এক প্রকার হাড়, যা থেকে কেটে ছোট ছোট তাবিজ আকারে দেয়া হয়।) তিনি বললেন: এটা খুলে ফেল, কারণ এটা তোমার দুর্বলতা বাড়ানো ভিন্ন কিছুই করবে না। যদি এটা বাঁধা অবস্থায় তোমার মৃত্যু হয়, তবে কখনও তুমি সফল হবে না”।
    [সুনান ইবন মাজাহ, হাদীস নং ৩৫৩১; হাদীসটি সহীহ্]

___আমাদের পোষ্টগুলি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে লাইক ,কমেন্টস দিয়ে মতামত পেশ করুন এবং  শেয়ার করে দ্বীনের কাজে আপনিও সহযোগিতা করুন এবং নিয়মিত পোষ্ট পেতে আমাদের ওয়েবসাইট https://sohihdinerpothe.com/ এর সাথেই থাকুুন!!

Print Friendly, PDF & Email

২১ thoughts on “ইসলামে তাবিজ ব্যবহার করাকে কি বলেছে?

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Skip to toolbar