মৃত্যুর পর কোন আমল গুলো আমাদের উপকারে আসে?

Spread the love
  1. প্রশ্ন: এমন ইলম যা মৃত্যুর পরেও সাদাকায়ে জারিয়া হিসাবে অব্যাহত থাকে সেই ইলম সম্পর্কে জানতে চাই। দয়া করে জানালে উপকৃত হব ইনশাআল্লাহ।

    °°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°
    উত্তর:
    আবু হুরাইরা রা. হতে বর্ণিত,রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেনঃ

    إِذَا مَاتَ الْإِنْسَانُ انْقَطَعَ عَنْهُ عَمَلُهُ إِلَّا مِنْ ثَلَاثَةٍ إِلَّا مِنْ صَدَقَةٍ جَارِيَةٍ أَوْ عِلْمٍ يُنْتَفَعُ بِهِ أَوْ وَلَدٍ صَالِحٍ يَدْعُو لَهُ

    “মানুষ মৃত্যু বরণ করলে তার আমলের সমস্ত পথ বন্ধ হয়ে যায় তিনটি ব্যতীত: যদি সে সাদকায়ে জারিয়া রেখে যায়,এমন শিক্ষার ব্যবস্থা করে যায় যার দ্বারা মানুষ উপকৃত হবে এবং এমন নেককার সন্তান রেখে যায় যে তার জন্য দুয়া করবে।” [বুখারী,অধ্যায়: মৃতের পক্ষ থেকে হজ্জ এবং মানত পালন করা এবং পুরুষ মহিলার পক্ষ থেকে হজ্জ করতে পারে।]
    —————

  2. মৃত্যুর পরেও যে ইলম থেকে মানুষ উপকৃত হয় তার কয়েকটি উদাহরণ:

    ▪- ইসলাম সম্পর্কে বই লেভিখা। লেখক মারা যাওয়ার পরও তার লিখিত বই থেকে মানুষ যুগে যুগে উপকৃত হতে থাকে।
    ▪- কোনও কিতাব ক্রয় করে ওয়াকফ করে দেয়া যার-থেকে মুসলিমগণ উপকৃত হবে।
    ▪- কাউকে দ্বীনী ইলম শিক্ষা দেয়া-যার নিকট থেকে তার ছাত্ররা শিক্ষা গ্রহণ করবে এবং মানুষের মাঝে তার প্রচার-প্রসার করবে।
    লাইব্রেরি প্রতিষ্ঠা করা-যা সমাজে জ্ঞান বিতরণে ভূমিকা পালন করা।
    ▪- মাদরাসা/ দ্বীনী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করা বা এ ক্ষেত্রে অবদান রাখা। যেখান থেকে শত শত ছাত্র/ছাত্রী দ্বীনের জ্ঞানার্জন করে সমাজকে আলোকিত করবে।
    ▪- ওয়েব সাইট, ফেসবুক, ইউটিউব ইত্যাদি আধুনিক মিডিয়ার মাধ্যমে দ্বীনের ইলম বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেয়া। সেখান থেকে লক্ষ মানুষ উপকৃত হয় এবং অন্যদের নিকট ছড়িয়ে দেয়ার সুযোগ পায়।
    ▪- কাউকে দ্বীনী বই উপহার দেয়া। যার মাধ্যমে সে উপকৃত হয়।
    ▪- শিক্ষকতা করা। একজন শিক্ষক হাজার হাজার ছাত্র/ছাত্রীর হৃদয়কে জ্ঞান দ্বীপ্ত আলোয় আলোকিত করে। তারপর সেই ছাত্র/ছাত্রীরা সেই ইলম ছড়িয়ে দেয় দিক-দিগন্তে।
    এগুলো সবই সদকায়ে জারিয়ার অন্তর্ভূক্ত। যার মাধ্যমে মানুষ মারা গেলেও কবরে থেকে সওয়াব অর্জন করতে থাকে।

    উল্লেখ্য যে, আল্লামা উসাইমীন রাহ. বলেন, কোন ঈমানদার ব্যক্তি যদি দুনিয়াবী ক্ষেত্রেও এমন জ্ঞান-বিজ্ঞানের স্বাক্ষর রেখে যায় যা মানবতা, সমাজ ও রাষ্টের কাজে লাগে তাতেও সে কবরে থাকা অবস্থায় সওয়াব লাভ করতে থাকবে ইনশাআল্লাহ। আল্লাহু আলাম।
    —————–
    উত্তর প্রদানে:
    আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
    দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, ksa

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published.